statistics

ইসমে আজম,বান্দার দোয়া কবুলের দোয়া

ইসমে আজম কি?

➡️’ইসম’ শব্দের অর্থ নাম আর ‘আজম’ শব্দের অর্থ সবচাইতে মহান বা শ্রেষ্ঠ।সুতরাং ইসমে আজমের অর্থ হচ্ছে “আল্লাহর সবচাইতে মহান বা শ্রেষ্ঠ নাম” আল্লাহ তায়ালার সবগুলো নামের মধ্যে যে নামগুলো দিয়ে তাঁর শ্রেষ্ঠত্ব সবথেকে বেশি প্রকাশিত হয় তাই হলো ‘ইসমে আজম’।

➡️ইসমে আজমের ফজিলত

 ইসমে আজমের ফজিলত হচ্ছে,এই নামে আল্লাহকে ডাকলে বা তাঁর কাছে দোয়া করলে আল্লাহ সবচাইতে বেশি খুশি হন, এবং বান্দার দোয়া কবুল করে নেন।আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এক ব্যক্তিকে নামাযে তাশাহুদ ও দরুদের পরে সালাম ফিরানোর আগে (দোয়া মাসুরা পড়ার সময়) ইসমে আজমের এই দোয়া পড়তে শুনলেন।অতঃপর নবী সাহাবাদেরকে জিজ্ঞেস করলেন, “তোমরা কি জানো সে কিসের দ্বারা দোয়া করেছে? সাহাবারা বললেন,”আল্লাহ ও তাঁর রাসুল ভালো জানেন।”তিনি বললেন,”সেই মহান সত্ত্বার কসম যার হাতে আঁমার প্রান, নিশ্চয়ই এই ব্যক্তি আল্লাহর নিকট তাঁর “ইসমে আজম” বা সুমহান নামের উসীলায় দোয়া করেছে। “ইসমে আজমের” উসীলায় দোয়া করলে আল্লাহ সেই দোয়া কবুল করে নেন, আর কোনো কিছু চাইলে আল্লাহ তাকে তা দান করেন।”

[আবু দাউদ,নাসায়ী,আহমাদ,বুখারীর আল-আদাবুল মুফরাদ,ত্বাবারানী ও ইবনে মান্দাহ “আত-তাওহীদ” গ্রন্থে (৪৪/২, ৬৭/১, ৭০/১-২)]

➡️ইসমে আজমের দোয়া:

اللَّهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ بِأَنِّي أَشْهَدُ أَنَّكَ أَنْتَ اللَّهُ لاَ إِلَهَ إِلاَّ أَنْتَ الأَحَدُ الصَّمَدُ الَّذِي لَمْ يَلِدْ وَلَمْ يُولَدْ وَلَمْ يَكُنْ لَهُ كُفُوًا أَحَدٌ

উচ্চারণঃআল্লাহুম্মা ইন্নী আস আলুকা বিআন্নি আশহাদু আন্নাকা আংতাল্লাহ,লা-ইলাহা ইল্লা আংতাল আ’হাদুস সামাদ আল্লাজী লাম ইয়ালিদ ওয়া লাম ইউলাদ ওয়া লাম ইয়া কুল্লাহূ কুফুওয়ান আ’হাদ।

➡️মোনাজাতের মাঝে এই দোয়াটি পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করতে পারবেন।

পোষ্টটি লিখেছেন: stacy544

এই ব্লগে এটাই এর প্রথম পোষ্ট.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *