statistics

শিক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়নে অবহেলা করলে ব্যবস্থা

করোনা পরিস্থিতিতে সশরীরে ক্লাস-পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হওয়ায় ৩০ কার্যদিবসের সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে টেলিভিশনে পাঠদান চলছে। পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মূল্যায়নে অ্যাসাইনমেন্ট নেওয়া হচ্ছে। এ অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়নে কোনো শিক্ষক অবহেলা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

মঙ্গলবার ইউটিউব-ফেসবুক দেখে অ্যাসাইনমেন্ট লিখে জমা দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি শিক্ষার্থীদের প্রতি এ হুঁশিয়ারি দেন।

মহাপরিচালক বলেন, কোনো শিক্ষার্থী যদি ইউটিউব কিংবা ফেসবুক থেকে উত্তর লিখে জমা দেয়, তাহলে সেটি অনৈতিক হবে। আমরা শিক্ষার্থীদের কোন কোন বিষয়ে পড়ালেখায় গ্যাপ রয়েছে, সেটি যাচাইয়ের জন্যই এ অ্যাসাইনমেন্টের ব্যবস্থা করেছি।

সবাই যদি সব প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেয়, তাহলে সবাইকেই তো ‘অতি উত্তম’ দিতে হবে। তখন শিক্ষার্থীদের কোন বিষয়ে সমস্যা, সেটি শিক্ষক বুঝবেন কীভাবে? সব ছাত্রছাত্রীর মূল্যায়ন এক হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কেননা কেউ কপি করে উত্তর দিলে শিক্ষকরা সেটি বুঝতে পারেন। ফলে ওই শিক্ষার্থীকে আবারও অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হয়। আর অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়নে কোনো শিক্ষক যদি গাফিলতি করেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

পোষ্টটি লিখেছেন: মোঃ মিলন ইসলাম

এই ব্লগে 397 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মোঃ মিলন ইসলাম এই ব্লগের একজন ব্লগার। এই সাইটে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পোষ্ট তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *