statistics

আইইউবিএটি’র স্প্রিং ২০২২ সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠিত

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজির (আইইউবিএটি) এর স্প্রিং ২০২২ সেমিস্টারের নতুন শিক্ষার্থীদের পরিচিতি পর্ব সম্পন্ন হয়েছে।

রবিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল থেকেই আইইউবিটির দৃষ্টি নন্দন গ্রিন ক্যাম্পাসের অডিটরিয়ামে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এই পরিচিতি পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে নতুন শিক্ষার্থীদের আইইউবিএটির মিশন, ভিশন, একাডেমিক নিয়ম, ক্যারিয়ার সার্ভিস, গ্রন্থাগার, আইটি, ক্লাব অ্যাক্টিভিটি, পরিবহন ব্যবস্থা ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নিয়ে ভিডিও চিত্র দেখানো হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিতি তুলে ধরা হয়।

সকাল ৯টায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে প্রায় ১৫০০ শিক্ষার্থী এবং তাদের অভিবাবকগণ অংশ গ্রহণ করেন।

আইইউবিএটির উপাচার্য অধ্যাপক ড.আব্দুর রবের সভাপতিত্বে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে অনুপ্রেরণামূলক বক্তব্য দেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড.হামিদা আখতার বেগম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিনা নার্গিস, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ড. মো. জাহিদ হোসেন (অব.) রেজিস্ট্রার অধ্যাপক মো: লুৎফর রহমান, প্রকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. মনিরুল ইসলাম, কৃষি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো: শহীদুল্লাহ মিয়া, ব্যবসায় অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. খায়ের জাহান সোগরা সহ অন্যান্য অধ্যাপকরা।

উপাচার্য অধ্যাপক ড.আব্দুর রব তার বক্তব্যে বলেন, আইইউবিএটি উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার পাশাপাশি মুক্তবুদ্ধি চর্চার পবিত্র অঙ্গন। যে শিক্ষা মানুষের শুভবোধকে উন্মোচিত করে, চেতনাকে করে দেশপ্রেমে উদ্ভাসিত, মেধা ও অভিজ্ঞতাকে দেশের কল্যাণে ধাবিত করে, সেই শিক্ষার আদর্শ ক্ষেত্র এই বিশ্ববিদ্যালয়।

তিনি বলেন করোনায় কারনে শিক্ষা ব্যবস্থা বাধাগ্রস্থ না হয় সেজন্য আমরা সকল ব্যবস্থা করে রেখেছি। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ক্লাস পরিচালনা করা হচ্ছে। আমাদের অধিকাংশ শিক্ষার্থী করোনার টিকা পেয়েছেন। নতুন শিক্ষার্থী যারা এখনো টিকা পান নি তাদের দ্রুততম সময়ে টিকার আওতায় আনা হবে।

তিনি নবীন শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ জানান এবং তাদের সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশের রূপায়ণে নিবেদিত হতেও আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে, সকল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, ডাইরেক্টর, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষকবৃন্দ, অ্যালামনাই, কর্মকর্তা, কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয়য়ের দর্শন বিভাগের কো-অর্ডিনেটর সহকারী অধ্যাপক কানিজ কাকন।

পরিচয় পর্ব শেষে নবীন শিক্ষার্থীরা তাদের প্রিয় ক্যাম্পাস ঘুরে দেখেন । উল্লেখ্য সম্প্রতি ছয়টি অনুষদের অধীনে দশটি স্নাতক ও একটি সম্মান কোর্সে বিপুল সংখ্যক পরীক্ষার্থীর অংশগ্রহণে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পোষ্টটি লিখেছেন: শাহাদাত হোসেন শাকিল

শাহাদাত হোসেন শাকিল এই ব্লগে 44 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *