statistics

ঢাবিতে ২১ মে থেকে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তাব

আগামী ২১ মে থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ সেশনের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তাব করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনস কমিটি। মঙ্গলবার উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির জরুরি সভায় এ প্রস্তাব উপস্থাপন করা হয়। 

আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সভায় এ বিষয়ে চূড়াস্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আগামী ২১ মে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। পরদিন ২২ মে কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিট, ২৭ মে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিট, ২৮ মে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত বিভাগ পরিবর্তনের সমন্বিত ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষা এবং ৫ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। 

সাদেকা হালিম আরও জানান, ৮ মার্চ থেকে অনলাইনে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু হবে এবং ৩১ মার্চ পর্যন্ত তা চলবে। তবে ভর্তির আবেদন ফি চূড়ান্ত করা হয়নি।

এ বিষয়ে উপাচার্য আখতারুজ্জামান বলেন, ডিনস কমিটির সভায় বিষয়গুলো প্রস্তাব আকারে তুলে ধরা হয়েছে। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি জেনারেল অ্যাডমিশন কমিটির সভায় সেটি চূড়ান্ত হবে।

করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছাড়াও আট বিভাগের শহরের বড় বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে কেন্দ্র স্থাপন করে ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দেড় ঘণ্টা পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে এমসিকিউয়ের জন্য ৫০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪০ মিনিট সময় বরাদ্দ থাকবে। 

মোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এর মধ্যে ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলের ওপর কোনো নম্বর থাকবে না। ভর্তি পরীক্ষার পাশ নম্বর হবে ন্যূনতম ৪০ শতাংশ।

পোষ্টটি লিখেছেন: মোঃ মিলন ইসলাম

এই ব্লগে 397 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মোঃ মিলন ইসলাম এই ব্লগের একজন ব্লগার। এই সাইটে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পোষ্ট তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *